Thursday, November 17, 2016

মিঠুন চাকমাকে গ্রেপ্তারের খবরে ’শীর্ষ সন্ত্রাসী’ তকমা ব্যবহারের প্রতিবাদ


তারিখ: ১৮ নভেম্বর, ২০১৬
আমার গ্রেপ্তারের খবরের শিরোনামে ’শীর্ষ সন্ত্রাসী’ তকমা ব্যবহারের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। গত ১১ জুলাই, ২০১৬ ইং আমাকে গ্রেপ্তারের পরে আপনার ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়া/ওয়েবসাইট/গণমাধ্যমে উক্ত খবরটি প্রকাশিত হয়। ্
প্রতিবাদ পত্র

আমি মিঠুন চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)এর সাবেক সভাপতি, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সাবেক আহ্বায়ক ও বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রামের গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)এর সংগঠক। গত ১১ জুলাই মধ্যরাতে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের পৌরসভার মধ্যে অবস্থিত নিজ বাড়ি থেকে আমাকে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তার করার পরে আমাকে অন্যান্য রাজনৈতিক মামলার পাশাপাশি বহুলভাবে সমালোচিত তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ নং ধারার ২ নং উপধারা’র ভিত্তিতে আরেকটি মামলা প্রদান করা হয়। মূলত, পার্বত্য চট্টগ্রামের অধিকার আদায়ের জন্য ব্লগ ও সামাজিক গণমাধ্যমে সরব যুক্তিমূলক উপস্থিতির কারণে আমার বিরুদ্ধে উক্ত হয়রানীমূলক এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত মামলা প্রদান করা হয়। দীর্ঘ ৯৮ দিন কারাগারে দিনযাপনের পরে বিজ্ঞ আদালত গত ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ইং আমাকে মুক্তি প্রদান করে। মুক্তির কিছুদিন পরে আমি ওয়েবসাইট-ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় আমার গ্রেপ্তারের খবরগুলো পড়ার সময় দেখতে পাই আমার গ্রেপ্তারের খবরের শিরোনামে ’শীর্ষ সন্ত্রাসী’ তকমা ব্যবহার করে খবরসমূহ প্রচার করা হয়েছে। এই ধরণের মিথ্যাচারমূলক শিরোনামা ব্যবহার করার তীব্র প্রতিবাদ আমি জানাচ্ছি। এটা একজন ব্যক্তির পরিচিতিকে সচেতনভাবে ও উদ্দেশ্যমূলকভাবে এবং রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির উদ্দেশ্যে হেয়মূলক ও অবমাননকরভাবে উপস্থাপনেরই শামিল।
আমার নামের সাথে ’শীর্ষ সন্ত্রাসী’ তকমা ব্যবহারের তীব্র প্রতিবাদের সাথে সাথে আমি আপনার প্রতি অনুরোধ করছি আপনার তথ্যমাধ্যম/ওয়েবসাইট/ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়া থেকে এই খবরটি ও তার শিরোনাম থেকে উক্ত শব্দবন্ধ যেন প্রত্যাহার করা হয়।
এখানে বলা প্রয়োজন যে, আমি ইউপিডিএফএর একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে আমার নামে বেশ কয়েকবছর ধরে হয়রানীমূলক মামলা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া আমার নামে রাজনৈতিক কারণে ’মারামারি-ইটপাটকেল নিক্ষেপ-পুলিশের কাজে বাধাদান-প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশ বয়কট’ ইত্যাদি ’অপরাধ সংঘটনের’ অভিযোগ মাত্র রয়েছে। প্রমাণাদি ব্যতীত শুধুমাত্র এই কতিপয় ’অপরাধ সংঘটনের’ ’অভিযোগ’, যা এখন আদালতে বিচারাধীন, তার ভিত্তিতে একজন রাজনৈতিক কর্মীর নামে ’শীর্ষ সন্ত্রাসী’ তকমা ব্যবহার করার কোন যুক্তিই থাকতে পারে না। এই ধরণের তকমা ব্যবহার একদিকে যেমন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত নীতিহীন প্রচারণার শামিল অন্যদিকে তা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ভিত্তিতে মিথ্যা ও অশ্লীলতার দোষে দুষ্ট বলে প্রতীয়মান হয়। 
 আমি আশা করছি আমার এই প্রতিবাদলিপি আপনার গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হবে। আন্তরিক সহায়তার জন্য ধন্যবাদ। 

মিঠুন চাকমা
সদস্য
ইউপিডিএফ

No comments:

Post a Comment